ইউরোপের নন সেনজেন ভুক্ত দেশের তালিকা

একটা বিষয় আমরা সকলেই বেশ ভালো করে জানি। সেটি হলো, সেনজেন চুক্তি এমন এক ধরনের বিশেষ চুক্তি। 

 

যার মাধ্যমে ইউরোপ এর মধ্যে থাকা মোট ২৬টি দেশ তাদের নিজেদের সীমান্ত গুলোর যোগাযোগ সহজ করে তুলেছে।  

 

এছাড়া তারা নিজেদের মধ্যে সাধারণ শুল্ক এবং পাসপোর্ট নিয়ন্ত্রণ সম্পূর্ণ ভাবে বাতিল করেছে। 

 

আর সে কারণে বর্তমান সময়ে সেনজেন অঞ্চল টি ইউরোপ এর মধ্যে বৃহত্তম অভ্যন্তরীণ মুক্ত বাণিজ্য অঞ্চলে পরিনত হতে পেরেছ।

 

ইউরোপের নন সেনজেন ভুক্ত দেশের তালিকা

ইউরোপের নন সেনজেন ভুক্ত দেশের তালিকা

তো অনেক সময় আমাদের ইউরোপের নন-সেনজেন ভুক্ত দেশের নাম জানার প্রয়োজন হয়। আর আপনি যেন আপনার প্রয়োজনে সঠিক তথ্য জানতে পারেন। 

 

সে কারনে নিচে ইউরোপের নন সেনজেন ভুক্ত দেশের তালিকা শেয়ার করা হলো। যেমন, 

 

  1. আয়ারল্যান্ড

  2. বুলগেরিয়া

  3. ক্রোয়েশিয়া

  4. সাইপ্রাস

  5. রোমানিয়া

  6. ইউক্রেন

  7. মোনাকো

  8. সান মারিনো

  9. ভ্যাটিকান সিটি

 

উপরের তালিকা তে আপনি যে সকল দেশের নাম দেখতে পাচ্ছেন। 

 

মূলত এই দেশ গুলোকে ইউরোপের নন সেনজেন ভুক্ত দেশ হিসেবে অর্ন্তভূক্ত করা হয়েছে। 

নন সেনজেন কাকে বলে?

উপরের আলোচনা থেকে আপনি ইউরোপের নন সেনজেন ভুক্ত দেশের তালিকা দেখলেন। 

 

তাই এবার অনেকের মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, নন সেনজেন কাকে বলা হয়। 

 

আর আপনিও যদি এই বিষয়ে জানতে চান, তাহলে শুনে রাখুন। 

 

সহজ কথায় বলতে গেলে, সেনজেন অঞ্চলের বাইরে থাকা দেশ গুলো কে নন-সেনজেন দেশ বলা হয়। 

 

আর সেনজেনভুক্ত অঞ্চলে যে নিয়ম কানুন মানা হয়। তার ঠিক বিপরীত নিয়ম পালন করা হয়, নন সেনজেন এলাকার মধ্যে। যেমন, 

See also  শপিফাই কি এবং কিভাবে এটি ব্যবহার করা হয়?

 

সেনজেন ভুক্ত অঞ্চলের মধ্যে থাকা দেশ গুলো তে কোনো প্রকার পাসপোর্ট বা ভিসার প্রয়োজন হয়না। 

 

অপরদিকে নন-সেনজেন দেশ গুলোর নাগরিকদের সেনজেন অঞ্চলে প্রবেশের জন্য পাসপোর্ট এবং ভিসা প্রয়োজন হয়।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কি নন সেঙ্গেন দেশ?

দেখুন, আমরা জানি শেনজেন অঞ্চল হল ইউরোপের ২৬ টি দেশ নিয়ে গঠিত। 

 

যে দেশ গুলোর একে অপরের মধ্যে কোনো ধরনের সীমান্ত নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা নেই।

 

আর বর্তমান সময়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদের শেনজেন অঞ্চলে প্রবেশ করার জন্য ভিসা প্রয়োজন হয়। 

 

তাই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র একটি নন-শেনজেন দেশ।

সাইপ্রাস কি শেনজেন অঞ্চলে যোগ দেবে?

এখন পর্যন্ত সাইপ্রাস শেনজেন চুক্তির সদস্য হতে পারেনি। তবে সাইপ্রাস শেনজেন চুক্তির সদস্য হতে যথেষ্ট আগ্রহ প্রকাশ করেছে। 

 

কিন্তুু সাইপ্রাসের সেনজেন অঞ্চলে অর্ন্তভুক্ত হওয়ার বিষয়টি কিছুটা অনিশ্চিত। 

 

কারণ, আমরা সবাই জানি সাইপ্রাসের দ্বীপ টি উত্তর এবং দক্ষিণ সাইপ্রাসের মধ্যে বিভক্ত। 

 

আর সবচেয়ে বড় সমস্যা হলো, শেনজেন দেশ গুলো উত্তর সাইপ্রাস কে একটি স্বীকৃত রাষ্ট্র হিসাবে সমর্থন করে না। 

 

যার কারণে সাইপ্রাসের সেনভুক্ত হওয়ার ব্যাপারটি এখনও অনিশ্চিত বলে ধরা হয়।

শেঙ্গেন ভিসা নিয়ে কয়টি দেশে যাওয়া যায়?

শেঙ্গেন ভিসা দিয়ে আপনি শেঙ্গেন দেশ গুলোর মধ্যে যে কোনো একটি দেশে প্রবেশ করতে পারবেন।

 

আর তারপর আপনি যে কোনো সময় অন্য শেঙ্গেন অঞ্চল ভুক্ত দেশে প্রবেশ করতে পারবেন। 

 

তবে আপনার কাছে যখন শেঙ্গেন ভিসা থাকবে। তখন আপনি উক্ত অঞ্চলে মোট ৯০ দিনের জন্য বসবাস করতে পারবেন।

সেনজেন শব্দের অর্থ কি?

আপনার একটা বিষয় জেনে রাখা উচিত। সেটি হলো, “সেনজেন” শব্দটি ফরাসির মধ্যে অবস্থিত শহর ”সেনজেন” এর নাম থেকে এসেছে। 

 

যে শহরের নাম অনুসারে “সেনজেন চুক্তি” নামকরন করা হয়েছে। 

See also  মালয়েশিয়া ই ভিসা কি? ই ভিসা চেক

আপনার জন্য কিছুকথা

আজকের আর্টিকেলে “ইউরোপের নন সেনজেন ভুক্ত দেশের তালিকা” – শেয়ার করা হয়েছে। 

 

তো আপনি যদি এই ধরনের অজানা বিষয় গুলো সহজ ভাষায় জানতে চান। 

 

তাহলে নিয়মিত আমাদের ওয়েবসাইটে ভিজিট করবেন। ধন্যবাদ, ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *