মালয়েশিয়া ই ভিসা কি? ই ভিসা চেক

বর্তমান সময়ে আপনারা যারা বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়া যেতে চান। তারা এখন খুব সহজে মালয়েশিয়া ই ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন। 

 

কিন্তুু আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ আছেন। যারা আসলে জানেনা যে, মালয়েশিয়া ই ভিসা কি। 

 

তো সেই মানুষ গুলোকে জানিয়ে দেওয়ার জন্যই আজকের এই আর্টিকেল টি লেখা হয়েছে। তাই চলুন, এবার জেনে নেওয়া যাক, মালয়েশিয়া ই ভিসা কি।

 

মালয়েশিয়া ই ভিসা কি? ই ভিসা চেক

মালয়েশিয়া ই ভিসা কাকে বলে?

বিশেষ প্রযুক্তি সম্পন্ন ইলেকট্রিক ভিসাকে বলা হয়, ই ভিসা। আর এই ধরনের ভিসা গুলো হলো বিশেষ এক ধরনের নথি। 

 

যার মাধ্যমে কোনো প্রকার ভিসা স্টিকার ছাড়াই একজন ব্যক্তিকে শনাক্ত করা সম্ভব। 

 

আর বর্তমানে অন্যান্য দেশ থেকে মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য যে ইলেকট্রিক ভিসার ব্যবহার করা হয়। তাকে এক কথায় বলা হয়, মালয়েশিয়া ই ভিসা।

 

তো আপনি চাইলে বর্তমান অনলাইন থেকেও মালয়েশিয়া ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন। 

 

আর ভিসার জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস গুলো অনলাইনের মাধ্যমে সাবমিট করতে পারবেন।  

ভারতীয় নাগরিকদের কি মালয়েশিয়া দিচ্ছে?

আপনি যদি একজন ভারতের নাগরিক হয়ে থাকেন। তাহলে আপনি বর্তমান সময়ে ভারত থেকে মালয়েশিয়া ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন। 

 

আর যদি আপনার আবেদন গ্রহনযোগ্য হয়। তাহলে আপনি ভারত থেকে মালয়েশিয়া যেতে পারবেন। 

See also  ই ভিসা কাকে বলে? ই ভিসার সকল তথ্য

মালয়েশিয়া সিঙ্গেল এন্ট্রি ভিসার মেয়াদ বাড়ানোর উপায় আছে?

আপনারা যারা একক প্রবেশ ভিসায় মালয়েশিয়া যাবেন। তারা শুধুমাত্র ৩০ দিনের জন্য বৈধতা পাবেন। 

 

কিন্তুু পরবর্তী সময়ে আপনি সেই ভিসার মেয়াদ বাড়াতে পারবেন না। এছাড়াও আপনি সামাজিক ভিজিট পাসও করতে পারবেন না। 

 

তবে যদি আপনি আরো দীর্ঘ সময় মালয়েশিয়া তে থাকতে চান। তাহলে আপনার মালয়েশিয়া ত্যাগ করে নিজের দেশে আসতে হবে। 

 

আর তারপর আপনাকে পুনরায় মালয়েশিয়া ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। 

 

আপনার ভিসা আবেদন গ্রহনযোগ্য হলে,তারপর আপনি উক্ত ভিসার মাধ্যমে পুনরায় মালয়েশিয়াতে দীর্ঘ সময় থাকতে পারবেন। 

শুধু পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে মালয়েশিয়া ভিসা চেক করা যায়?

হ্যাঁ, অবশ্যই! আপনি শুধু পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে মালয়েশিয়া ভিসা চেক করতে পারবেন। 

 

তবে পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে মালয়েশিয়া ভিসা চেক করার জন্য। আপনাকে যে সকল নিয়ম ফলো করতে হবে। 

 

সেগুলো উপরের আলোচনায় দেখিয়ে দেওয়া হয়েছে। 

মালয়েশিয়া ভিসা কত প্রকার?

বর্তমান সময়ে মালয়েশিয়া তে বিভিন্ন প্রকারের ভিসা পাওয়া যায়। 

 

তবে ভিজিট ভিসা, ব্যবসা ভিসা, শিক্ষার্থী ভিসা ও ওয়ার্ক পারমিট ভিসার ব্যবহার সবচেয়ে বেশি হয়। 

পাসপোর্টের মেয়াদ ৩ মাস হলে কি মালয়েশিয়া যাওয়া যাবে?

না, কারন মালয়েশিয়া ভিসার জন্য আবেদন করতে হলে। আপনার পাসপোর্ট এর মেয়াদ কমপক্ষে ০৬ মাস হতে হবে। 

 

এর পাশাপাশি আপনার পাসপোর্ট এর মধ্যে স্ট্যাম্প দেওয়ার জন্য। একটি ফাঁকা পৃষ্ঠা থাকতে হবে।

অনলাইনে কি মালয়েশিয়া ই ভিসা চেক করা যাবে? 

যেহুতু মালয়েশিয়া ই ভিসা হলো ইলেকট্রিক ভিসা। তাই আপনি খুব সহজ ভাবে আপনার ই ভিসা অনলাইন থেকে চেক করতে পারবেন। 

 

তবে বর্তমান সময়ে পাসপোর্ট নাম্বার ও অ্যাপ্লিকেশন নাম্বার দিয়ে মালয়েশিয়া ই ভিসা চেক করতে পারবেন। 

 

See also  শপিফাই কি এবং কিভাবে এটি ব্যবহার করা হয়?

তো অনলাইনে মালয়েশিয়া ই ভিসা চেক করতে গেলে আপনাকে বেশ কিছু নিয়ম মানতে হবে। 

 

আর এবার আমি আপনাকে সেই নিয়ম গুলো স্টেপ বাই স্টেপ দেখিয়ে দিবো। যেমন, 

কিভাবে অ্যাপ্লিকেশন নাম্বার দিয়ে মালয়েশিয়া ই ভিসা চেক করবো?

অনলাইন থেকে Application Number দিয়ে Malaysia E Visa Check করতে চাইলে,

 

  1. এই লিংকে ক্লিক করুন। 

  2. ”Application Number” এর মধ্যে নাম্বার প্রদান করুন। 

  3. তারপর “Search” বাটনে ক্লিক করুন। 

 

উপরের এই সহজ কাজটি করার মাধ্যমে, আপনি অ্যাপ্লিকেশন নাম্বার দিয়ে মালয়েশিয়া ই ভিসা চেক করতে পারবেন। 

কিভাবে পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে মালয়েশিয়া ই ভিসা চেক করবো?

যদি পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে মালয়েশিয়া ই ভিসা চেক করতে চান। তাহলে, 

 

  1. এই লিংকে ক্লিক করুন। 

  2. তারপর “Passport Number” এর মধ্যে আপনার নাম্বার টি দিন। 

  3. নিচের অপশনে আপনার দেশ হিসেবে “Bangladesh” দিন। 

  4. তারপর সার্চ করুন। 

 

উপরে দেখানো পদ্ধতির মাধ্যমে, আপনি পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে মালয়েশিয়া ই ভিসা চেক করতে পারবেন। 

আপনার জন্য কিছুকথা

মালয়েশিয়া ই ভিসা কি -আজকে এই বিষয়ে বিস্তারিত বলা হয়েছে। 

 

এর পাশাপাশি মালয়েশিয়া ই ভিসা সম্পর্কে এমন কিছু তথ্য শেয়ার করেছি। যেগুলো আপনার জেনে নেওয়া জরুরী। 

 

তো এমন অজানা বিষয় গুলো জানতে NIru Web এর সাথে থাকুন। ধন্যবাদ। 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *