Hsc এর পর কানাডা পড়াশোনা

আমাদের বাংলাদেশের মধ্যে এমন অনেক শিক্ষার্থী আছেন। যারা মূলত HSC এর পর কানাডা তে পড়াশোনা করতে চায়। তো বর্তমান সময়ে বাংলাদেশ থেকে Hsc এর পর কানাডা তে বিভিন্ন প্রোগ্রামে ভর্তি হওয়া সম্ভব। 

তবে আপনার আসলে কোন প্রোগ্রামে ভর্তি হওয়া ভালো হবে। তার জন্য আপনার কি কি যোগ্যতার দরকার হবে। এই যাবতীয় বিষয় গুলো নিয়ে আজকে বিস্তারিত আলোচনা করবো। 

Hsc এর পর কানাডা পড়াশোনা

HSC এর পর কানাডায় পড়াশোনা করা যাবে?

Canada-after-Hsc: একজন শিক্ষার্থী যেমন আমাদের বাংলাদেশে এইচএসসি এর পর বিভিন্ন ধরনের কোর্সে/প্রোগ্রামে ভর্তি হতে পারে। ঠিক তেমনি ভাবে সেই শিক্ষার্থী কানাডার মতো উন্নত দেশেও ভিন্ন ধরনের প্রোগ্রামে ভর্তি হতে পারবে। তবে ভর্তির ক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই একজন যোগ্যতা সম্পন্ন শিক্ষার্থী হতে হবে। 

যেমন, আমাদের বাংলাদেশে এইচএসসি পাস করার পর একজন শিক্ষার্থী অনার্স, ডিগ্রী, ডিপ্লোমা, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে পারে। তবে তার জন্য উক্ত শিক্ষার্থীর জিপিএ (GPA) কে সর্বাধিক গুরুত্ব দেওয়া হয়। কেননা, এর মাধ্যমে একজন শিক্ষার্থীর নির্দিষ্ট একটি প্রোগ্রামের মধ্যে ভর্তি হওয়ার সুযোগ প্রদান করা হয়। 

ঠিক একইভাবে যখন আপনি এইচএসসি এর পর কানাডাতে পড়াশোনা করতে চাইবেন। তখন কানাডার নির্দিষ্ট প্রোগ্রামে ভর্তির যেসব যোগ্যতা উল্লেখ করা আছে। আপনাকেও উল্লেখিত সেই যোগ্যতা সম্পন্ন শিক্ষার্থীর আওতায় থাকতে হবে। 

HSC এর পর কানাডায় কোথায় পড়াশোনা করা যাবে? 

উপরের আলোচনা থেকে আমরা জানতে পারলাম যে, বাংলাদেশ থেকে একজন শিক্ষার্থী যখন HSC পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হবে। তখন সেই শিক্ষার্থী উচ্চশিক্ষা লাভের জন্য কানাডায় যেতে পারবে। তাই এখন অনেকের মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, এইচএসসি এর যদি কানাডায় যাই। তাহলে সেখানে কোথায় ভর্তি হওয়া যাবে। 

See also  IELTS ছাড়া বিদেশে উচ্চ শিক্ষার সেরা দেশসমূহ

তো বর্তমান সময়ে আপনি এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ন হওয়ার পর, কানাডার বিভিন্ন ধরনের প্রোগ্রামে ভর্তি হতে পারবেন। যেমন, ডিপ্লোম প্রোগ্রাম, অনার্স প্রোগ্রামে ভর্তি হতে পারবেন। এছাড়াও কানাডার মধ্যে মাত্র ০১ বছরের বিশেষ একটি প্রোগ্রাম আছে। যেখান থেকে আপনি নির্দিষ্ট বিষয়ে পূর্ণাঙ্গ জ্ঞান লাভ করতে পারবেন। 

কানাডায় পড়াশোনা করতে Ielts স্কোর লাগবে?

সত্যি বলতে কানাডার মধ্যে থাকা খুব কম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আছে। যেগুলোতে Ielts স্কোর ছাড়াই পড়াশোনা করা যায়। তবে কানাডার অধিকাংশ স্বনামধন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোতে ভর্তি হতে চাইলে আপনাকে বাধ্যতামূলক আইইএলটিএস করতে হবে। এছাড়াও আপনার তাদের নির্ধারিত Ielts Score থাকতে হবে। 

আর কানাডার মধ্যে থাকা ভিন্ন ভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এর জন্য ভিন্ন আইইএলটিএস স্কোর থাকতে হয়। কারণ আপনি যতো স্বনামধন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হবেন। সেখানে আপনার ততো বেশি Ielts স্কোর এর দরকার হবে। তবে স্বাভাবিক ভাবে যদি আপনার স্কোর ৭.০০ থেকে ৭.৫ স্কোর থাকে। তাহলে আপনি কানাডার অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পাবেন। 

কানাডায় পড়াশোনা করতে কি কি লাগবে?

যখন আপনি আমাদের বাংলাদেশ থেকে কানাডার মতো একটি দেশে পড়াশোনা করতে চাইবেন। তখন সেই দেশে পড়াশোনা করতে গেলে আপনার নিকট বেশ কিছু ডকুমেন্টস ও যোগ্যতার প্রয়োজন হবে। আর সেগুলো নিচের তালিকায় উল্লেখ করা হলো। 

  1. বৈধ পাসপোর্ট থাকতে হবে। 
  2. ভর্তির অফার লেটার। 
  3. আবেদন ফরম। 
  4. শিক্ষাগত যোগ্যতার সার্টিফিকেট। 
  5. Ielts এর যোগ্যতার সনদ। 
  6. ভর্তির জন্য পর্যাপ্ত যোগ্যতা।
  7. আর্থিক সচ্ছলতার প্রমান (ব্যাংক ব্যালেন্স)।
  8. সদ্য তোলা ছবি। 
  9. জাতীয় পরিচয়পত্র/জন্ম নিবন্ধন সনদ। 

মূলত যখন আপনি কানাডায় পড়াশোনা করতে চাইবেন। তখন আপনার নিকট এই ডকুমেন্টস গুলো থাকতে হবে। এর পাশাপাশি আপনার যোগ্যতা থাকতে হবে। তাহলেই আপনি কানাডায় পড়াশোনা করতে পারবেন। 

কানাডায় স্টুডেন্ট ভিসায় যেতে কত টাকা লাগে?

যেহুতু আপনি পড়াশোনা করতে কানাডা যেতে চান। সেহুতু অবশ্যই আপনাকে স্টুডেন্ট ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। আর অন্যান্য দেশের তুলনায় কানাডার স্টুডেন্ট ভিসার খরচ কিছুটা বেশি হয়। কেননা, বর্তমান সময়ে একজন শিক্ষার্থীর কানাডা স্টুডেন্ট ভিসা করতে প্রায় ০৫ লাখ টাকা থেকে ০৬ লাখ টাকা খরচ করার প্রয়োজন পড়বে। 

See also  চ্যাটজিপিটি বনাম গুগল | কে সবার সেরা?

কানাডায় পড়াশোনা করতে কত ব্যাংক ব্যালেন্স লাগবে?

আমরা সকলেই জানি যে, কানাডায় পড়াশোনা করার জন্য আর্থিক সচ্ছলতার প্রমাণ দিতে হয়। সেক্ষেত্রে আপনাকে ব্যাংকের মধ্যে নির্ধারিত পরিমান টাকা ব্যালেন্স দেখাতে হবে। যার মাধ্যমে তারা বুঝতে পারবে যে, আপনি কানাডায় পড়াশোনার খরচ করার জন্য সম্পূর্ণ ভাবে প্রস্তুত। 

তবে সেজন্য আপনার আসলে কত টাকা ব্যাংক ব্যালেন্স থাকতে হবে। সেটা আসলে নির্দিষ্ট করে বলা সম্ভব নয়। কেননা, ভিন্ন ভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও প্রোগ্রামের উপর নির্ভর করে ভিন্ন ব্যাংক ব্যালেন্স এর দরকার হয়। 

কিন্তু স্বাভাবিক ভাবে কানাডায় প্রতি বছরের জন্য ন্যূনতম $10,000 থেকে $20,000 ডলার ব্যাংক ব্যালেন্স প্রয়োজন। আর এই খরচের মধ্যে আপনার থাকা, খাওয়া, যানবাহনের খরচ সহো অন্যান্য খরচ গুলো অন্তর্ভূক্ত থাকবে। 

আপনার জন্য আমাদের কিছুকথা

যারা HSC এর পর কানাডার মতো উন্নত দেশে পড়াশোনা করতে চান। মূলত তাদের জন্য আজকের লেখা টি অনেক হেল্পফুল হবে। তো এরপরও যদি আপনার কানাডায় পড়াশোনা নিয়ে কোনো ধরনের প্রশ্ন থাকে। তাহলে আপনার প্রশ্নটি নিচে কমেন্ট করে জানিয়ে দিবেন। 

আর এতক্ষন ধরে Niru Web এর সাথে থাকার জন্য আপনাকে জানাচ্ছি অনেক অনেক ধন্যবাদ। ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *